Home শিশুর টিকার তালিকা শিশুকে টিকা দেয়ার পর সম্ভাব্য পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া এবং তার জন্য করণিয়:যেমন একটু জ্বর হওয়া, টিকা দেওয়ার জায়গাটিতে ক্ষত হয়ে যাওয়া ইত্যাদি…

শিশুকে টিকা দেয়ার পর সম্ভাব্য পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া এবং তার জন্য করণিয়:যেমন একটু জ্বর হওয়া, টিকা দেওয়ার জায়গাটিতে ক্ষত হয়ে যাওয়া ইত্যাদি…

8 second read
0
1,373

টিকা  মুখে  খাওয়ানো  হোক  বা  ইনজেকশনের  মাধ্যমে দেয়া  হোক,  সবগুলোই জীবিত  জীবাণু  দিয়ে  তৈরি  করা  হয়। সংশ্লিষ্ট  ব্যাকটেরিয়া  বা  ভাইরাসকে   প্রক্রিয়ার  মাধ্যমে  ‘দুর্বল’  করে  টিকা  হিসেবে  ব্যবহার  করা  হয়।  জীবাণুদের  এই  ‘দুর্বলতা’  একটি  স্থায়ী  বিষয়;  কাজেই  তারা  কখনও  শক্তিশালী  হতে  পারে  না  এবং  কোন  ক্ষতি  করতে  পারে  না।  কিন্তু  নিরপেক্ষ  চিকিৎসা  বিজ্ঞানীরা  মনে  করেন  যে,  কারো  শরীরে  উপযুক্ত  পরিবেশ  পেলে  জীবাণুরা  শক্তিশালী  হয়ে  উঠতে  পারে  এবং  ক্ষতিসাধন  করতে  পারে। তবে টিকা দেয়ার পর জীবাণুরা শক্তিশালী হয়ে উঠেছে বা বিপজ্জনক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া হয়েছে তা খুব একটা দেখা যায় না।

টিকার  যতগুলো  মারাত্মক  পার্শ্ব -প্রতিক্রিয়া  আছে,  তার  মধ্যে  একটি  হলো  ‘সাডেন  ইনফেন্ট  ডেথ  সিনড্রোম’  বা  শিশুর  হঠাৎ  মৃত্যু (SIDS-Sudden  Infant  Death  Syndrome)।

শিশুকে টিকা দেয়ার পর কিছু স্বাভাবিক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া হতে পারে। স্বাভাবিক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার লক্ষণ জানা থাকলে চিন্তা মুক্ত থাকা যায়। আর স্বাভাবিক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার ব্যতিক্রম হলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিতে হবে।

টিকা দেয়ার পর কিছু স্বাভাবিক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া:

শিশুকে ইনজেকশনের মাধ্যমে টিকা দেয়ার পর টিকার স্থানে সামান্য ব্যথা, লাল, ফোলা, ছোট দানা, ক্ষত বা ঘা হতে পারে। শিশুর ২-৩ দিন জ্বর থাকতে পারে।

করণীয়:

এরকম কিছু হলে ভয় বা চিন্তার কিছু নেই এবং কোনো চিকিৎসারও প্রয়োজন নেই।   ক্ষত স্থানে কোন ওষধ বা তেল দেয়া যাবে না। টিকার স্থান খোলা রাখতে হবে এবং নিজ থেকেই ক্ষত শুকিয়ে যাবে। ব্যথা, লাল বা ফোলা এমনিতেই সেরে যাবে। শিশুকে বার বার মায়ের দুধ খাওয়াতে হবে। এছাড়া স্বাভাবিক খাবারের পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণ তরল খাদ্য দিতে হবে।

সকল টিকার ক্ষেত্রে:

যদি টিকাদান প্রয়োগ কৌশল ত্রুটিপূর্ণ হয় তাহলে টিকা দেয়ার ফলে টিকার স্থানে ফোঁড়া হতে পারে অথবা চামড়া লাল এবং ফুলে যেতে পারে। এরকম হলে শিশুকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে নিতে হবে।

শিশুর ইনজেকশনের স্থানে ফোঁড়া হলে করণীয়:

যদি ইনজেকশন দেওয়ার ৪-১০ দিন পরে ইনজেকশনের স্থান গরম, লালচে, অনেকটা জায়গা নিয়ে শক্ত হয়ে যায় ও ঐ স্থানে অনেক বেশি ব্যথা হয়, তাহলে মনে করতে হবে এটা ইনফেকশনের লক্ষণ এবং ফোঁড়া সৃষ্টি হচ্ছে। এই সময় টিকা গ্রহণকারীর জ্বর আসতে পারে। চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে নিতে হবে। ফোঁড়া হলেও পরবর্তী টিকার ডোজ ও পরবর্তী টিকা সময়সূচি অনুযায়ী অবশ্যই দিতে হবে।

Load More Related Articles
Load More In শিশুর টিকার তালিকা
Comments are closed.

Check Also

আপনি কি বাচ্চার জন্যে কাপড়ের ন্যাপি ব্যবহার করেন? সেটির ভালো ও খারাপ উভয় দিক সম্পর্কে জানতে চান?

আপনি কি সেইসব মায়েদের মধ্যে পড়েন যাঁরা কেনা ডাইপার ব্যবহার করতে দ্বিধা বোধ করেন? এখন এ ব্য…