গর্ভকালীন সময়ে গ্যাসের সমস্যাঃ কারণ এবং প্রতিকার

গর্ভকালীন সময়ে বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা হলো গ্যাসের সমস্যা। এটি যেকোন সময়, যেকোন মানুষের জন্যই অনেক বেশি অস্বস্তির হতে পারে। আর গর্ভকালীন সময়ে ব্যাপারটি আরো বেশি করে ঘটে থাকে বলে মা শারীরিকভাবে এবং মানসিকভাবে কিছুটা হীনমন্যতায় ভুগে থাকেন। এ বিষয়ে বিস্তারিত থাকছে আজকের লেখায়ঃ
কেনো এই সমস্যা হয়?
গর্ভকালীন সময়ে সাধারণত যেসব কারণে গ্যাসের সমস্যা দেখা যায় সেগুলো হলোঃ

  • • শরীরের বাড়তি হরমোন, বিশেষত প্রজেস্টেরন বা রিলাক্সিন নামক হরমোনগুলো এর জন্য বেশি দায়ী।
  • • খাবারের অনিয়ম বা মর্নিং সিকনেস,
  • • গর্ভাবস্থায় হজমের সমস্যা,

কিছু বিশেষ খাবার। এসব কারণেই সাধারণত গর্ভকালীন সময়ে গ্যাসের সমস্যা তৈরি হয়ে থাকে এবং যারা মর্নিং সিকনেস বা বমি বমি ভাবের সমস্যায় বেশি ভুগে থাকেন তাঁদের জন্য সমস্যাট আরো বেশি প্রকট হয়ে দাঁড়ায়।
গ্যাসের সমস্যা সমাধানে করণীয়ঃ

  • • নিয়মিত একটি নির্দিষ্ট সময় ধরে প্রতিদিন খেতে হবে। কোনভাবেই খাবারে অনিয়ম করা যাবেনা।
  • • একটু পর পর অল্প অল্পকরে খেতে হবে।
  • • খাবার খাওয়ার সম তাড়াহুড়া না করে ধীরে ধীরে সম্পূর্ণ চাবিয়ে খাবার খেতে হবে যাতে হজমে সমস্যা না হয়।
  • • খাবার খাওয়ার পরে বেশি করে পানি পান করতে হবে।
  • • কার্বোনেটেড ড্রিঙ্কস পরিহার করতে হবে।
  • • এই সময় টাইট ফিটিং সব কাপড়চোপড় বা বেল্ট পরা এড়িয়ে চলতে হবে।
  • • চুইংগাম যথাসম্ভব না খাওয়াই ভালো।
  • • কৃত্রিম রঙ এবং চিনিযুক্ত প্যকেটজাত খাবার পরিহার করতে হবে।
  • • প্রতিদিন ব্যায়াম করতে হবে নিয়ম করে।
  • • পুদিনাপাতাদিয়ে চা খেলে এই সমস্যা থেকে অনেক সময় রেহাই পাওয়া যায়।

গ্যাস সমস্যা সমাধানে যেসব খাবার এড়িয়ে চলা ভালোঃকিছু কিছু খাবার রয়েছে যা মায়ের গ্যাসের সমস্যা আরো বেশি বাড়িয়ে দিতে পারে। এক্ষেত্রে মায়ের সমস্যা বেশি হলে ঐসব খাবার পরিহার করা বা কম খাওয়াটাই শ্রেয়। খাবারগুলো হলোঃ

  • • আপেল,
  • • শিমের বিচি,
  • • ব্রোকলি,
  • • বাধাকপি,
  • • ফুলকপি,
  • • দুধ বা পনির,
  • • পেঁয়াজ,
  • • নাশপাতি ইত্যাদি।

cl-hatihatipa

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!