Home মায়ের গর্ভ গর্ভাবস্থায় এন্টিবায়োটিক সেবন গর্ভবতী মায়ের যকৃত অকার্যকর করতে আর মায়ের পেটে.. বিস্তারিত দেখুন!

গর্ভাবস্থায় এন্টিবায়োটিক সেবন গর্ভবতী মায়ের যকৃত অকার্যকর করতে আর মায়ের পেটে.. বিস্তারিত দেখুন!

6 second read
0
694

সন্তান গর্ভে থাকাকালীন সময়ে গর্ভবতী মাকে নিয়ে যেন চিন্তার শেষ নেই। কি খাবে, কখন খাবে, কিভাবে চলবে, কি কাজ করবে না সব বিছুই যেন মেপে মেপে করতে হয়। এর মধ্যে মায়ের সামান্য একটু অসুস্থতা দুঃচিন্তা বাড়িয়ে দেয় বহুগুন। আর অসুস্থতা মানেই চলে আসে ঔষধ সেবনের প্রশ্ন। সাথে সেই ঔষধ যদি হয় এন্টিবায়োটিক,তবে প্রয়োজন বাড়তি সতর্কতা। অবশ্যই আপনার চিকিৎসক আপনাকে পরামর্শ দেবেন সব ব্যপারে সবসময়। তারপরও জেনে রাখা ভাল কোন এন্টিবায়োটিক নিরাপদ আর কোনটা বিশেষভাবে ক্ষতি করে গর্ভের শিশুর। শুধু তাই নয় গর্ভাবস্থায় একটি নিরাপদ এন্টিবায়োটিকের নিরাপদের সংজ্ঞা এন্টিবায়োটিকটি গর্ভবতী মা তার গর্ভাবস্থায়ের কোন সময়ে সেবন করছে, কতদিন সেবন করছে এবং কত মাত্রায় সেবন করছে এইসব কিছুর উপরও নির্ভর করে।
আসুন একনজরে জেনে নেই প্রচলিত নিরাপদ এন্টিবায়োটিক যা কিনা সচরাচর চিকিৎসকরা গর্ভবতীদের পরামর্শপত্র করে থাকেন।
Amoxicillin
Ampicillin
Clindamycin
Erythromycin
Penicillin
উপরে উল্লেখিত গ্রুপের এন্টিবায়োটিকগুলো ছাড়া অন্য সবধরনের এন্টিবায়োটিকই গর্ভাবস্থায় এড়িয়ে চলতে হবে। উদাহরন স্বরূপ বলা যায়, Tetracyclines [ Doxycycline and Minocycline ] গর্ভবতী মায়ের যকৃত অকার্যকর করতে আর মায়ের পেটে থাকা শিশুর দাঁত ভবিষ্যতে বিবর্ণ করে ফেলতে প্রভাব ফেলতে পারে।
তবে একথা অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, আপনার শারীরিক অবস্থায় যদি এন্টিবায়োটিক প্রয়োজন হয়, তবে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকই পারবেন আপনাকে সঠিক মাত্রার একটি নিরাপদ এন্টিবায়োটিক সেবনের পরামর্শ দিতে।

Load More Related Articles
Load More In মায়ের গর্ভ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

বাচ্চার মুখ থেকে লালা পড়া বন্ধ করার জন্য কি করা যেতে পারে?

প্রথমেই জেনে রাখা ভালো যে বিশেষজ্ঞদের মতে, শিশুর মুখে লালা নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। শিশুদের …