শিশু খাচ্ছে না, এটি নিয়ে বেশি চিন্তিত?

অনেক সময় শিশু খেতে চায় না বলে অভিভাবকরা বেশি চিন্তাগ্রস্ত থাকেন। তবে অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, শিশুটি ঠিকই খাচ্ছে, তবে অভিভাবকরা অতিরিক্ত চিন্তা করছেন বিষয়টি নিয়ে।  কথা বলেছেন ডা. মো. নজরুল ইসলাম আকাশ। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু সার্জারি বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : বাচ্চারা খেতে চায় না এমন অভিযোগ কেন বেশি হয়? এবং কোন খাবার শিশুর কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়ায়?

উত্তর : বাচ্চারা খায় না। আসলে এটা কিছুটা মায়েদের অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা। বাচ্চার ওজন হয়তো বয়সের তুলনায় বেশি। তার পরও মায়েরা বলেন, বাচ্চারা খায় না। আমাদের কাছে সমস্যা নিয়ে আসে।

আবার দেখা যায়, মা-বাবা ঠিকমতো বাসায় থাকেন না। সারা দিন শিশুটি অন্য কারো কাছে বড় হয়। বাসায় যতক্ষণ থাকে, তখন একটি অপরাধ বোধে ভোগে। বাচ্চাকে মনে হয়, সারা দিনই কিছু খাওয়ানো হলো না। এ জন্য বাচ্চাকে খাওয়াতে সে জোরাজুরি করে। বাচ্চা তখন খেতে চায় না। সেখান থেকে এ রকম একটি বিষয় আসতে পারে। আর কিছু মা আছেন, যাঁদের হয়তো খুব বেশি কাজ থাকে না, তারা অন্য বাচ্চাকে দেখেন, সেই বাচ্চাটি হয়তো সুন্দর। তখন মনে হয়, আমার বাচ্চা কেন মোটা হলো না, তখন বেশি করে খাওয়াতে চায়। হয়তো দেখা যায় মা-বাবা ছোট, তবে বাচ্চা সে খুব বড় চায়। অর্থাৎ বীজ যেমন হবে। বাচ্চাও সে রকম হবে। এ রকম কিছু সমস্যা নিয়ে আমাদের কাছে আসে।

এ ছাড়া খাদ্যাভ্যাসের কারণে এমন হয়। পানিজাতীয় খাবার, সবজি এ ধরনের খাদ্যাভ্যাস আমরা বাচ্চাদের করাতে পারি না। এ ছাড়া ফাস্টফুড বা চিপস, পনির, চকলেট, বিস্কুট—এই খাবারগুলো বেশি খাওয়ার কারণে, প্রোটিন ও চর্বিজাতীয় খাবার বেশি খাওয়ার কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য বেড়ে যায়। এসব দিয়ে ক্ষুধা নষ্ট করে ফেলে।

cl-ntv

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!