কিভাবে আপনার শিশুর ঘুমের সময়সূচি তৈরি করবেন

যখন আপনার শিশুর বয়স ৩-৪ মাস তখন থেকেই আপনি একটি ঘুমের সময়সূচি তৈরি করা শুরু করতে পারেন যা হবে তার স্বাভাবিক ঘুমের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ । আপনার শিশুর ঘুমের সঙ্কেতগুলো ভালভাবে লক্ষ্য করুন। সে কি মধ্য সকালে বা দুপুরে খাবার পর তন্দ্রাচ্ছন্ন হয় সে কি প্রায়ইদুপুরের পূর্বাহ্নে ঘুমিয়ে পড়ে আপনি কি তার দৃষ্টিতে ও মনোযাগে কোন পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন যখন সে দীর্ঘ বা অল্প সময়ের জন্য ঘুমায়

আপনি হয়তো ১-২ সপ্তাহ আপনার শিশুর ঘুমের সঙ্কেত এবং দিনে ভাঙা ভাঙা ঘুমের তথ্য সংরক্ষণ করতে চাইবেন। এটি আপনার শিশুর পরবর্তী ঘুমের ধরন বুঝতে সাহায্য করবে।

উদাহারণস্বরূপ যদি আপনার শিশু প্রতিদিন ১০টা মধ্যে বদমেজাজী বা পাগলেটে হয়ে যায় এবং ঘুমাতে চায় আপনি তাকে সাহায্য করতে পারেন। সে বেশি ক্লান্তিবোধ করার পূর্বেই তার ঘুমের ইঙ্গিত শুরু হওয়ার ১৫-২০ মিনিট আগে থেকেই তাকে খাবার খাওয়ান কাপড় পরিবর্তন করে দিন এবং দোলনায় বা কোলে দোলান আলো নিভিয়ে দিন এবং আস্তে কথা বলুন। এভাবে সে ঘুমের রাজ্যে পৌঁছে যাবে যখন সেই ক্লান্তিবোধ সে অনুভব করবে। একটি সময়সূচি অবলম্বন করুন।

ধারাবাহিকতা রক্ষা করাই হচ্ছে লক্ষ্যঃ আপনার শিশুর দিনের ঘুমের যথাসম্ভব একটি সময়সূচি অবলম্বন করুন। যদি আপনি আপনার শিশুকে একদিন ৩টায় ঘুম পাড়ান এবং পরের দিন দুপুরের খাবার পর ঘুম পাড়ান তাহলে তার একটি নিয়মিত ঘুমের অভ্যাস গড়তে সমস্যা হবে।
এমন কাজগুলো থেকে বিরত থাকুন যা আপনার শিশুর ঘুমের সময়সূচির বিরূপ।

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!