শিশুর বমি : ডাঃ সুদ্বেষ রক্ষিত

শিশুর বমি কেনো হয়?

শিশুকে জোর করে খাওয়ানো হলে অনেক সময় খাওয়ানোর পর পরই শিশুর বমি হয়ে যায়। অনেক সময় একই ধরণের খাবার বারবার খেতে দাওয়ার ফলে শিশুর অরুচি হয় এবং বমি করে ফেলে দেয়। হঠাৎ করে খাবারে পরিবর্তন আনলেও শিশুর বমি হতে পারে। শক্ত এবং ঘন খাবার শিশু খেতে পারে না, ফলে অনেক সময় বমি করে ফেলে দেয়। অনেক সময় ক্রিমির সংক্রমণে শিশুর বমি হয়ে থাকে।

 বুকের দুধ খাওয়ানোর পর পরই অনেক সময় শিশু বমি করে ফেলে কেনো?

নবজাতক শিশু বুকের দুধ খাওয়ার সময় বাতাস পেটে ঢুকে অনেক সময় গ্যাসের সৃষ্টি হয়।

মায়ের দুধের ভেতর ল্যাকটোসজাতীয় পদার্থ থাকে যা ভেঙেও গ্যাস তৈরি হয়। এছাড়া শিশু ফিডার খাবার সময় কিছু বাতাস পেটে প্রবেশ করে গ্যাসের সৃষ্টি হয়।

শিশুর বমি কখন দুশ্চিন্তার কারণ হয়?

শিশুকে খাওয়ানোর আধ ঘণ্টার মধ্যে বমি হলে, বমির সাথে রক্ত গেলে, বমির সাথে সবুজ পাতলা পায়খানা হলে তা দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাড়ায়। পেটের ইনফেকশন, ফুড অ্যালার্জি ইত্যাদি কারণে শিশুর বমি হলেও তা দুশ্চিন্তার কারণ।

কখন শিশুকে ডাক্তারের কাছে নিব?

শিশুর যদি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৬ বারের বেশি পাতলা পায়খানা হয় অথবা তিনবারের বেশি বমি হয় তাহলে দ্রুত শিশুকে ডাক্তারের কাছে নেয়া উচিত।

শিশুর বমি হলে কি বুকের দুধ খাওয়ানো বন্ধ করে দেবো?

বুকের দুধ খাওয়ানো বন্ধ করা ঠিক নয়। বুকের দুধের পাশাপাশি ওরস্যালাইন দেয়া যেতে পারে।

শিশুর বমি হলে করণীয় কি?

শিশুকে তরল খাবার বারবার খেতে দিতে হবে।এর মাধ্যমে শিশুর শরীর থেকে যে পরিমাণ তরল বের হয়ে গেছে তা পূরণ হয়ে যাবে। শিশু বুকের দুধ খেলে তা বন্ধ করা যাবে না। ফলের রস না দেয়াই ভালো।

Dr. Sudesh Rakshit, Assistant Professor

MBBS,DCH,MD, Pediatrics/Child Specialist

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!