শিশু কিভাবে মেধাবী হবে জেনে নিন

একজন নিউরো বিশেষজ্ঞের মতে

আমাদের মস্তিস্কে প্রায় ১০০ বিলিয়ন নিউরন রয়েছে। প্রতিটি নিউরন তাৎক্ষনিক ৫০ হাজার নিউরনের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনে সক্ষম হয়।

মস্তিস্কে নিউরনগুলো একে অন্যের সাথে ইলেকট্রো কেমিক্যাল সিগন্যাল প্রসেসের মাধ্যমে জুলিওন ট্রিলিয়ন সংযোগ স্থাপন করে। যার আবহ বৈদ্যুতিক ঝড়ের ন্যায়! বাড়ন্ত বয়সে শিশুর মস্তিস্কের নিউরনসমুহ একে অন্যের সাথে খুব দ্রুত সংযোগ স্থাপন করতে পারে।

এ সময় মস্তিষ্কের নিউরনসমুহকে উদ্দীপ্ত করা গেলে তারা সর্বচ্চ সংখ্যক নিউরন সার্কিটের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনে সক্ষম হয়।

যার ফলে শিশুর মস্তিস্কের বহুগুণে বৃদ্ধি পায়! অন্য দিকে যদি এ সময় নিউরন সমুহকে উদ্দীপ্ত করা না যায় তাহলে ক্রমান্বয়ে নিউরনগুলো নিষ্ক্রিয় হয়ে পরে এবং হ্রাস পেতে থাকে মস্তিষ্কের ক্ষমতা।

শিশুর মস্তিষ্কের ধারন ক্ষমতা পূর্ণ বয়স্কদের তুলনায় প্রায় ১০০ গুন বেশী। যা বয়স বাড়ার সাথে সাথে ক্রমান্বয়ে কমতে থাকে। বর্তমানে উন্নত চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের গবেষণায় অ্যাবাকাস ব্যবহারে শিশুর মস্তিকের নিউরনসমূহের কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে সর্বোচ্চ সংখ্যক নিউরন সার্কিটের মধ্যে আন্তঃসংযোগের মাধ্যমে তৈরি হয় একটি শক্তিশালী মেধাবী মস্তিস্ক।

তাই প্রতিটি সুস্থ ও স্বাভাবিক শিশু সঠিক সময়ে এবং সঠিক পদ্ধতির মাধ্যমে মেধার বিকাশ সাধন করা যায় তাহলে প্রতিটি শিশুই হয়ে উঠতে পারে পৃথিবীর মেধাবী একজন মানুষ!

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!