প্যাকেটজাত শিশুখাদ্য কি ভালো? জেনে নিন!

প্যাকেটজাত শিশুর খাবার দেখতে যতটা ভালো মনে হয়, আসলেই কী ততটা ভালো! সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, শিশুদের প্যাকেটজাত খাবারে বেশি পরিমাণে লবণ এবং চিনি ব্যবহার করা হয়। যা পরবর্তী জীবনে রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় এবং শরীর স্থূল হয়ে যায়। এই গবেষণায় নেতৃত্ব দেন মেরি কোগসওয়েল। অ্যাসোসিয়েট প্রেস ও আমেরিকান একাডেমির পেডিয়াট্রিকস জার্নালের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি।

শিশুরা পছন্দ করে এমন এক হাজার প্যাকেটজাত শিশুখাদ্য বেছে নেওয়া হয় এই গবেষণায়। এর মধ্যে ছিল ম্যাকারনি, প্যাকেটজাত পনির, মিনি হট ডগস, কেক, ক্রেকার্স এবং প্যাকেটজাত দই। তবে কোনো ব্র্যান্ডের নাম উল্লেখ করেননি গবেষকরা।

গবেষণায় দেখা গেছে, প্যাকেজজাত ১০ ধরনের শিশুখাদ্যে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি লবণ ব্যবহার করা হয়। প্রতিটি প্যাকেটে ২১০ মিলিগ্রাম লবণ ও সোডিয়াম থাকা দরকার। কিন্তু এসব প্যাকেটে রয়েছে ৩৬১ মিলিগ্রাম লবণ ও সোডিয়াম। যা সাধারণ পরিমাণের তুলনায় ১ দশমিক ৫ ভাগ বেশি।

এ ছাড়া প্যাকেজজাত বিভিন্ন ধরনের কুকিস এবং পেসট্রিতে সঠিক মাত্রার তুলনায় বেশি পরিমাণে চিনিও ব্যবহার করা হয়। প্যাকেটজাত ফলেও চিনি ও ক্যালোরির পরিমাণ বেশি থাকে। প্যাকেটজাত ফলের রসেও চিনির আধিক্য দেখা গেছে।

গবেষক মেরি কোগসওয়েল বলেন, সোডিয়ামের আধিক্য রক্তচাপ বাড়িয়ে তোলে, এটি আমাদের কমবেশি সবারই জানা। আর খাবারে চিনির পরিমাণ বেশি থাকলে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ছাড়া এসব খাবারে কিছু অতিরিক্ত ক্যালোরিও যোগ করা হয়। যা শরীরে প্রয়োজন পড়ে না।

গবেষকদের মতে, শিশুদের খাবার কেনার সময় মা-বাবাকে সতর্ক থাকতে হবে। ছোটবেলা থেকে শিশুর খাবারে সোডিয়াম ও চিনির মাত্রা সঠিক পরিমাণে থাকলে পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন রোগের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। তাই প্যাকেটের গায়ে পুষ্টির মাত্রা দেখে খাবার কেনার পরামর্শ দেন গবেষকরা।

Sharing is caring!

Comments are closed.