যেই ৯টি খাদ্য আপনার সন্তানের শরীরে জলের পরিপূরক হিসেবে কাজ করে

বিশেষজ্ঞরা বড়দের ক্ষেত্রে দিনে অন্তত আট গ্লাস জল পান করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন এবং ছোটদের মোটামুটি ৫গ্লাস। এতে শরীর আর্দ্র থাকে। তবে গরমের মধ্যে এটুকু জল শিশুদের জন্যে পর্যাপ্ত নয়। শরীর তখন আরো বেশি জল চায়। কিছু খাবার রয়েছে যেগুলোতে জলের মাত্রা বেশি থাকে। এগুলো জলের চাহিদা অনেকটাই পূরণ করে আপনার সন্তানের শরীরকে আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে।

১.মুলো 

মুলোর ৯৬% হল জল। ঝাঁঝালো গন্ধ এবং চমৎকার রঙের জন্য বিভিন্ন ধরনের সালাদ বানানোর জন্য মুলো ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়া রান্নাতেও মুলো ব্যবহৃত হয়। এর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ক্যাটেচিন এবং রিবোফ্ল্যাবিন; যেটা প্রোটিন, চর্বি ও কার্বোহাইড্রেটকে ভাঙতে এবং শিশুর দেহে শক্তি জোগাতে সাহায্য করে।

২. ধুন্দুল বা জুকিনি 

ধুন্দুলের মধ্যে ৯৫% জল রয়েছে। গরমের দিনে শিশুদের খাওয়ার জন্য একটি চমৎকার সবজি। ধুন্দুল পটাশিয়াম ও ফলেটের ভালো উৎস। এগুলো বর্তমানে যে শিশুদের উচ্চ রক্তচাপ সমস্যা হয়, সেটি  নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং বড়দের ক্ষেত্রে স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

৩. বেল পিপার বা ক্যাপসিকাম

এর মধ্যে ৯২% জল রয়েছে। কেবলমাত্র খাবারকে সুন্দর গন্ধের করা এবং রঙিন করা ছাড়াও শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য অন্যতম খাবার এটি। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ ভিটামিন সি, ভিটামিন বি১, বি৬ এবং ফলিক এসিড। এই সবকিছুর সমন্বয় রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায়।

৪. গাজর

গাজরে ৮৭% জল রয়েছে। জল ছাড়াও গাজর বেটা ক্যারোটিনের চমৎকার উৎস। এটা কেবল তারুণ্যই ধরে রাখে না, শিশুদের ফুসফুসের সমস্যা এবং মুখগহ্বরের ক্যানসার রোধ করতে সাহায্য করে।

৫. ব্রকলি

৮৯% জল রয়েছে এতে। ব্রকলিতে রয়েছে ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি, ম্যাগনেসিয়াম, ফাইবার, ক্যালসিয়াম।

৬. শসা

শসায় রয়েছে ৯৬% জল। এটাকে কাঁচা সালাদ হিসেবে বা স্যুপ বানিয়েও খাওয়া যেতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে থায়ামিন এবং ক্যাফিক এসিড যা শিশুদের সুন্দর ত্বকের জন্য ভালো এবং প্রদাহ দূর করে।

৭. তরমুজ

এর মধ্যে ৯২% জল। ভিটামিন এ, বি৬, সি, লাইকোপিন, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও এমাইনো এসিডের ভালো উৎস। এ ছাড়া এতে পটাশিয়াম ও সামান্য পরিমাণ সোডিয়াম রয়েছে। তরমুজ শিশুর দেহের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায়।

৮. আম

আমের মধ্যে ৮৪% জল রয়েছে। একে ফলের রাজা বলা হয়। এর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন এ, বি৬ এবং সি রয়েছে যা শিশুর রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়িয়ে দেহকে শক্তিশালী করে।

৯. কমলা

কমলায় ৮৭% জল রয়েছে। কমলা ভিটামিন সি-এর বেশ ভালো উৎস। শরীরের জলের চাহিদার অনেকটাই পূরণ করে কমলা।

tinystep

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!