কীভাবে বুঝবেন শিশু পানিশূন্যতায় ভুগছে! ডা. নাসিম জাহান জেসি

অনেক সময় শিশুর শরীর পানিশূন্য হয়ে পড়ে। প্রয়োজনমতো ব্যবস্থা নিলে শিশুর এই সমস্যা প্রতিকার করা যায়।

ডা. নাসিম জাহান জেসি। বর্তমানে তিনি আজগর আলী হাসপাতালের নবজাতক ও শিশু বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত আছেন।

প্রশ্ন : বাচ্চার মধ্যে পানিশূন্যতা হলে কীভাবে সেটি বোঝা যাবে?

উত্তর : শিশু ছোট অবস্থায় খুব দ্রুত পানিশূন্য হয়ে পড়ে। তার যদি বারবার পাতলা পায়খানা হয়, আগে হয়তো দেখা যেত দিনে চার-পাঁচবার পায়খানা করত, হঠাৎ করে দেখা গেল ১০ থেকে ১৫ বার পায়খানা করছে; তার চোখ বসে যাচ্ছে,

জিহ্বার যে ভেজা ভাব থাকে সেটি কমে যাচ্ছে, চোখ শুষ্ক হয়ে যাচ্ছে; চোখের পানিটা কমে আসে—এতে বুঝব তার পানিশূন্যতা হচ্ছে। আরেকটি জিনিস খেয়াল করতে হবে, প্রস্রাব। অনেক নবজাতক দেখা যেত আট-দশবার প্রস্রাব করত, তার পরিমাণটা কমে যাচ্ছে। এ ধরনের লক্ষণ দেখা গেলে তাকে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে নিতে হবে।

প্রশ্ন : শিশুর পানিশূন্যতার প্রধান কারণ কী?

উত্তর : পায়খানার সঙ্গে যে পানি যায়, সেটা একটা নির্দিষ্ট পরিমাণে যায়। সঙ্গে সঙ্গে বাচ্চা ভালো থাকে এবং খাবারটাও ভালো পরিমাণে নেয়।

যখন সে দুর্বল থাকে, তখনই তার পাতলা পায়খানা হয়। ডায়রিয়ার বিভিন্ন কারণ থাকে। কখনো ভাইরাল কারণ থাকে, কখনো ব্যাকটেরিয়াল কারণ থাকে।

এসব কারণে অনেক সময় শিশুর পেটে ব্যথা হয়, তখন সে খেতে চায় না। পাশাপাশি তার পায়খানা দিয়ে প্রচুর পরিমাণে পানি বেরিয়ে যায়। এগুলো কারণে তার মূলত পানিশূন্যতা হয়।

এই তো গেল ডায়রিয়া, পানিশূন্যতার বিষয়। এর পর দেখা যায় তার চোখে অনেক সময় ময়লা বা পিচুটি হয়। দেখা যায় তার চোখ লাল হয়ে যাচ্ছে,

চোখে ময়লা পড়ছে, যাকে কংজেংটিভাইটিস বলি। এমন হলেও চিকিৎসকের কাছে নিতে হবে। ntv

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!