Home মায়ের যত্ন গর্ভবতী মহিলাদের কি কি ধরণের ত্বকের সমস্যা হয়ে থাকে ও কিভাবে সেগুলি মোকাবিলা করবেন?

গর্ভবতী মহিলাদের কি কি ধরণের ত্বকের সমস্যা হয়ে থাকে ও কিভাবে সেগুলি মোকাবিলা করবেন?

6 second read
0
391

গর্ভবতী মহিলাদের শরীরে অনেক ধরণের হরমোন উৎপন্ন হয় যার কারণে তাদের ত্বকে অনেক দাগ, ছোপ দেখা যায়৷

  • ১. তার থেকে বাঁচতে শরীরে বা মুখে যে জায়গায় দাগ হয়েছে সেখানে ত্রলোভেরা জেল লাগাতে পারেন, হলুদ গুড়োও লাগাতে পারেন৷
  • ২. বগলের নীচে ও কালো দাগ দেখা দিতে পারে তাই সেখানে লেবুর রস ও হলুদ গুড়ো পারেন৷
  • ৩. গর্ভবতী মহিলা দের পেটের মধ্যে প্রসারিত চিহ্ণ দেখা দিতে পারে; ত্রর থেকে বাঁচতে বাদাম তেল ও পেপেঁর রস ব্যবহার করতে পারেন৷
  • ৪. এই সময় চোখের নীচে কালো দাগ হতে পারে; ত্রর থেকে বাঁচতে দুধ তুলা দিয়ে চোখের নীচে লাগালে চোখের নীচের কালো দাগ কমে যাবে৷
  • ৫. গর্ভধারণ করার পর থেকেই সানস্ক্রিন লোশন বা জেল ব্যবহার করা উচিত এবং নীজের শরীর ও মুখ ভালো করে পরষ্কার রাখা দরকার৷
  • ৬. গর্ভাবস্হাাায় মহিলাদের নারিকেল তেল ব্যবহার করা খুব উপকারী; স্নাানের জলে কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল দিয়ে স্নান করুন তাহলে শরীরে অনেক চমক আসবে৷ গর্ভধারণ করার পর গর্ভবতী মহিলারদের চুল পড়ার সমস্যা হয় তখন নারিকেল তেল ব্যবহার করুন চুল পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন৷

গর্ভবতী মহিলাদের একটু বেশী নিজেদের খেয়াল রাখা দরকার৷ তখন বেশী পরিমাণে জল খাওয়া দরকার, রৌদ্র থেকে দূরে দরকার৷ গর্ভধারণ করার পর শরীরের গঠন বদলে যায় ত্রবং শরীরে অনেক চুলকুনি হয়, এর থেকে বাঁচতে স্নানের সময় প্রথমে শরীরে জল না ঢেলে একটু দুধ, দই, মধু ও একটু ঘি এগুলো মিশিয়ে শরীরে লাগিয়ে একটি কাপড় দিয়ে নিজের শরীরকে ঘষতে থাকুন,তাহলে চুলকুনি থেকে বাঁচতে পারেন৷

গর্ভধারণ করার পর কিছু ফল খেলে ও শরীর,মন ও ত্বক ভালো থাকে, যেমন:- কমলা- কমলা তে ভিটামিন C থাকে যা ত্ক র জন্য খুব ভালো৷ প্রচুর পরিমাণে শাক-সব্জি ও খান, ডিম খান কারণ ডিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন A, ভিটামিন D , পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও আয়রণ ও প্রোটিন থাকে৷ কলা তে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন B6 থাকে যা গর্ভাবস্হায় হওয়া অলসতা কে দূর করে৷ দুধ এ ও প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে এসব খেলে গর্ভবতী মহিলাদের শরীর, মন, ত্বক সব কিছু ভালো থাকে৷ গর্ভধারণ করার পর ভালোভাবে ঘুমান এর ফলে আপনার ত্বক ভালো থাকবে৷ সকাল বেলা উঠুন ব্যয়াম করুন যে ব্যয়াম গর্ভবতী অবস্হায় করা যায় সেটাই করুন৷ সব সময় খুশী থাকুন, নিজের আশেপাশে ভালো পরিবেশ তৈরী করুন যা করতে ভালো লাগে করুন, বই পড়ুন, নিজের শরীরের খেয়াল রাখুন, মনে রাখবেন গর্ভাবস্হায় আপনি নিজের সাথে সাথে নিজের হবু বাচ্চার ও খেয়াল রাখছেন৷ গান শুনুন, ভালো জায়গায় ঘুরতে যান৷ কথা বলুন, গল্প করুন যাদের সাথে কথা বলতে আপনার ভালো লাগে৷ নিয়মিত খাওয়া, দাওয়া করুন৷ রাতে সময় মত ঘুমোতে যান৷ কারণ এ সময় ভালো ঘুম হওয়া দরকারী৷ মনে রাখবেন মন ভালো থাকলে শরীর ও ত্বক দুটোই ভালো থাকে৷

Source:tinystep

Load More Related Articles
Load More In মায়ের যত্ন
Comments are closed.

Check Also

এক বছরের ছোট বাচ্চাদের কেন বাহিরের দুধ খাওয়াবেন না?

গরুর দুধের কৌটা বা প্যাকেটের নিচের কোনায় ছোট্ করে লেখা থাকে “এক বছরের নিচের শিশুর জন্য প্…