কোন কোন খাবার গরমকালে শিশুদের থেকে দূরে রাখা উচিত?

গরম তো পড়েই গেছে। আর গরম পড়ার সাথে সাথে শরীরে হাসপাস করা শুরু হয়ে যায়. না কাজ করে শান্তি, না বসে শান্তি, না ঘুরে শান্তি, না খেয়ে শান্তি। তার ওপর শিশুদেরকে এই সময় সব থেকে বেশি সুরক্ষিত রাখতে হয় কারণ রোগ ভোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা তাদের সবচেয়ে বেশি। কিন্তু গরম থেকে বাঁচতে শিশুরা অনেক রকম খাবারের বায়না করে থাকে, এমনকি আপনিও ভালোবেসে তাদের সেগুলি খাইয়ে মন ভোলাতে চান. কিন্তু, আপনি কি জানেন যে আপনি কতবড় ভুল করেন? বিজ্ঞানীরা ও ডাক্তাররা এই সময় কঠোরভাবে এই ৫টি জিনিস থেকে শিশুদের দূরে রাখতে বলছেন। শুধু শিশু নয়, বড়দেরও। দেখুন কি কি! আপনিও ভালোবেসে তাদের সেগুলি খাইয়ে মন ভোলাতে চান. কিন্তু, আপনি কি জানেন যে আপনি কতবড় ভুল করেন? বিজ্ঞানীরা ও ডাক্তাররা এই সময় কঠোরভাবে এই ৫টি জিনিস থেকে শিশুদের দূরে রাখতে বলছেন। শুধু শিশু নয়, বড়দেরও। দেখুন কি কি!

১. আইসক্রিম/ গোলা 

শিশুরা গরমে আইসক্রিম খাওয়ার বায়না করবেই। আপনারও কি ভালো লাগেনা গরমে আইস করিম খেতে?  তবে এখন থেকে সাবধান হন। আইসক্রিমের মধ্যে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ ক্যালোরি ও ফ্যাট, প্রোটিন ও কার্বোহাইড্রেট। এছাড়া কম দামি জল বরফ আইরক্রিম খুব একটা ভাল জল দিয়ে তৈরি হয়না, অনেক সময় মাছ সংরক্ষণ করতে যেসব বরফ ব্যবহার করা হয়, সেই  বরফ ব্যবসায়ীরা আইসক্রিমে ব্যবহার করে থাকেন।

২.কোল্ড ড্রিঙ্কস 

কোল্ড ড্রিঙ্কস গরম কালের প্রাণ। অনেকে বাড়িতে ফ্রিজে সারাক্ষনের জন্যে কোল্ড ড্রিঙ্কস রেখে দেন. বাচ্চারা যখন তখন চাইলে এটি হয়তো আপনি দিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু মনে রাখবেন এতে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ ক্যালোরি। এটি শরীরকে জলশূন্য করে দেয়। তাই গরমে কোল্ড ড্রিঙ্কস পান করতে ইচ্ছে করলেও নিজেকে আটকান।

৩. চা অথবা কফি

চা অথবা কফি একদম ছোট বাচ্চারা না খেলেও একটু বড় হলেই বাচ্চারা সেগুলি পান করতে শুরু করে. আর বড়রা তো আছেই। কিন্তু চা বা কফি শরীরকে জল শূন্য করে তোলে। এর বদলে ফলের রস পান করা অনেক ভালো।

৪. ঝাল খাবার

গরমের সময় বাচ্চাদের ঝাল জাতীয় খাবার থেকে দূরে রাখাই ভালো। লঙ্কা, আদা, দারুচিনি ইত্যাদি হল থারমোজেনিক। এগুলো শরীরের তাপ বাড়িয়ে দেয়। তাই এ ধরনের খাবার এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

Source:tinystep

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!