আপনি কি জানতেন যে আপনার গর্ভের সন্তান এগুলি পছন্দ করে না?

যখন একটি নতুন গর্ভবতী মহিলা গর্ভের শিশু সম্পর্কে চিন্তা করেন তখন মা খুব সতর্ক থাকেন যে কি খেতে হবে, কি না, কি করতে হবে, কি না, ইত্যাদি। এছাড়া পরিবারের প্রবীণ সদদ্যরাও খুব সতর্ক থাকেন এবং তারা বলে দেন যে মা কি করবেন এবং কি করবেন না। সন্তানের নাম, তার স্কুলে যাওয়া, ভবিষ্যতে কি করতে চায় সে সম্পর্কে চিন্তা করতেও শুরু করে দেন। কিন্তু এই সবের মাঝখানে, একজন ভুলে যায় গর্ভের ভেতর ভ্রুন শিশুটি কেমন অনুভব করছে, কি মনে করে, এমনকি অনেক মা গর্ভের শিশুর অবস্থা সম্পর্কে জানতে চান, যে সে কোনোরকম চেইপ আছে কি না, কি চাইছে, ইত্যাদি। এই সম্পর্কে জানার একটি উপায় হল আল্ট্রাসাউন্ড স্ক্যান। এতে সন্তানের মুখ স্পষ্ট বোঝা না গেলেও বেশ অনেকটাই বধ্যয় হয়ে ওঠে, শিশু দুঃখ পাচ্ছে নাকি হাসছে, সব। তাই আসুন আমরা কিছু জিনিস আপনাকে জানাই যা শিশু গর্ভে থাকা কালীন পছন্দ করে না।

 ১. মা যখন জোরে জোরে হাসে 

গর্ভবতী মহিলাদের পরীক্ষা করে শেখ গেছে যে আল্ট্রাসাউন্ড স্কিনিং এর সময় মায়ের হাসি  গর্ভস্থ শিশুর আন্দোলন ঘটে। মা হাসলে তার প্রতিক্রিয়া বোঝা যায়। মায়ের হাস্যোজ্জ্বল হাসির কারণে, শিশুটি গর্ভের মধ্যে হাসে, অর্থাৎ সে খুব খুশি। কিন্তু অনেক সময়েই তারা খুশি হয় না, বরং ভয় পায়। তাই খুব জোরে জোরে না হাসি ভাল।

২. আশ্চর্য বা অবাক হলে 

ভ্রূণে শিশু খুব আশ্চর্য হয়ে যখন তারা শব্দ শুনতে পায়। মা হঠাৎ লাফালাফি করলে বা অবস্থান পরিবর্তন করলে শিশু তা পছন্দ করে না। কারণ তাদের বাইরের জগতের সাথে কোন সম্পর্ক নেই। তাই তারা ২৮ সপ্তাহের পর থেকে ছটফট করতে থাকে।

৩. যখন মা স্থান পরিবর্তন করে 

যখনই কোন মা তার আসন বা স্থান পরিবর্তন করেন শিশুকেও তার অবস্থান পরিবর্তন করতে হয়। কখনও কখনও সন্তান স্থান পায় না, তাই তখন তারা লাথি মারে।

৪. মা অত্যন্ত বিভ্রান্ত হলে 

বাচ্চা এমনিতেই বেশি বিভ্রান্তি পছন্দ করে না, তার ওপর মা বিভ্রান্ত হলে এরই পছন্দ করেন সে। পার্শ্ববর্তী পরিবেশ যখন জগাখিচুড়ি হয়ে থাকে শিশুর তখন ভয় পায়। কোনো পরিবেশে যদি খুব শব্দ বা চিৎকার হয় শিশুর কাছেও এগুলি পরিচিত হতে পারে। এই সময়ে, গর্ভের শিশু হতাশ হয়ে পরে বা ভয় পায়। কিছু শিশু যেমন সঙ্গীত খুব ভালোবাসে।

৫. গর্ভ স্পর্শ করা 

সন্তানের প্রতিক্রিয়া জানাতে, মা সন্তানকে স্পর্শকরতে চায় তাঁর গর্ভে হাত দিয়ে এবং এটি খুব সাধারণ জিনিস। অনেক মায়েরা শিশুটিকে উত্সাহিত করার  চেষ্টা করে গর্ভে হাত রেখে। আবার শিশু যদি গর্ভে লাথি মারে বা ঘরে, তখনও মা বুঝতে খেলতে চায় তার শিশুর সাথে। কিন্তু আসলে শিশু সেই হাত দেওয়া পছন্দ করেন, এবং সে এক থাকতে চায়.

৬. মা যখন খুব ম্মানষিক চাপে থাকে 

শিশু বুঝতে পারে যে মা বিষণ্ণ বোধ করছে। বিষন্ন হলে করটিসোল শরীরের মধ্যে উত্পাদিত হয় যার ফলে আরো  ক্লান্ত লাগে, এবং দুর্বলতা আসে। এবং এইগুলি শিশুকে প্রভাবিত করে। এগুলি শিশুকে প্রভাবিত করে এবং শিশু ইটা পছন্দ করেন।

Source:tinystep

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!