৭টি লক্ষণ যা বোঝায় যে আপনার গর্ভের সন্তান অসুস্থ

৭টি লক্ষণ আছে যা আপনাকে বুঝিয়ে দিতে পারে যে আপনার অজাত শিশু গর্ভের ভেতরে অসুস্থ অর্থাৎ গর্ভে থাকা কালীন আপনার ছোট্ট শিশুটি ভঙ্গুর এবং রোগ প্রতিরোধ শক্তি প্রকাশ করতে অক্ষম। এই সময় খুবই অসুবিধা হয় কারণ আপনি আপনার শিশুকে দেখতে পাচ্ছেন। কিন্তু কয়েকটি লক্ষণ দেখে বোজাহার চেষ্টা করতে পারেন।

১. কোন হৃদস্পন্দন নেই

এটি অবশ্যই একটি চিহ্ন। ডোপ্লার টেস্ট দ্বারা গর্ভাবস্থার ১০তম সপ্তাহের সময় আপনার শিশুর হৃদস্পন্দন সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত। এটি ক্লান্তি বা চাপের জন্য হতে পারে।

২. মোচড় দিয়ে ব্যথা 

এটা গর্ভবতী হলে স্বাভাবিক, ঠিক যেমনটা আপনার মাসিকের সময় হয়। এটি মূত্রনালীতে স্থানান্তর রক্ত ​​প্রবাহের কারণে হয়ে থাকে । কিন্তু যদি এটি দীর্ঘ সময় ধরে চলে এবং কষ্ট ভোগ করা অসম্ভব হয়ে ওঠে ও রক্তপাত হয় বিশেষ করে, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় চতুর্থাংশে, এটি আপনার অসুস্থ শিশু ধারণ করার লক্ষণ।

৩. রক্তপাত 

রক্ত স্রাবের কোন পরিমাণ নিরাপদ নয়। তবে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা বা প্লাসেন্টার কারণে এটি একটি গর্ভপাত হতে পারে।

৪. গুরুতর পিঠে ব্যথা 

কিছু গর্ভবতী মহিলাদের গর্ভাবস্থার সময় কিছু সময় পেট ব্যথা হয়। এটি অনেক কারণে হতে পারে কারণ ওজন ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। তবে যদি পিঠের ব্যথা খুব বেশী হয় ও না কমে, তাহলে এটি কিডনি বা মূত্রাশয় সংক্রমণের লক্ষণ হতে পারে।

৫. অস্বাভাবিক যোনি স্রাব 

একটি সাধারণ স্রাব হয় যার কোন গন্ধ বা রঙ হয় না, এটি স্বাভাবিক। কিন্তু যদি আপনার একটি কড়া গন্ধ রক্তবর্ণ স্রাব দেখা দেয়, এটি দেখায় যে শিশু ভাল নেয়। এর অর্থ আপনার দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

ইন্ট্রোট্টারাইন বৃদ্ধি প্রতিরোধের (আই ইউ জি আর) একটি পরীক্ষা যা দিয়ে দেখা যায় যে শিশুটির সময়ের সাথে সাথে বিকাশ হচ্ছে। গর্ভাবস্থায় যেসব শিশুদের শ্বাস কষ্ট, শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি এবং রক্তচাপের সমস্যা থাকে সেগুলি এতে ধরা পড়ে যায়।

৭. কোন আন্দোলন দেখা দেবে না 

আপনার সন্তানের সক্রিয় হয়ে ২০ সপ্তাহের মধ্যে পেটে লাঠি মারবে। আপনি প্রতি দুই ঘন্টা অন্তত ১০টি ধাক্কা আশা করতে পারেন।

Source:tinystep

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!