শীতে শিশুকে প্রচুর তরল খাওয়ান

আগেই বলেছি, শীতে শিশুরা আক্রান্ত হয় বেশি। তাই শীতে শিশুর প্রতি বাড়তি যত্ন আবশ্যক। এ সময়ে শিশুরা শ্বসনতন্ত্রের সংক্রমণেই বেশি ভোগে। অ্যাটোপিক অ্যাজমা, ব্রঙ্কিওলাইটিস, নিউমোনিয়া বেশি হয়। জ্বর, সর্দি, কাশি, দুর্বল হয়ে যাওয়া, খাওয়া ছেড়ে দেওয়া ইত্যাদি এসব রোগের লক্ষণ। এসব রোগে চিকিৎসকের কাছে গিয়ে চিকিৎসা নিতে হবে।

সাধারণত সর্দি, কাশি, জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল ও অ্যান্টিহিস্টামিন জাতীয় ওষুধ খেতে দিতে হয়। প্রয়োজন মনে হলে অ্যান্টিবায়োটিক দিতে হবে।

এ সময়ে শিশুকে প্রচুর তরল, যেমন—দুধ ও জুস খাওয়াতে হবে। শিশুর গায়ে যেন ঠান্ডা বাতাস না লাগে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। উলের সোয়েটার, কানটুপি, মোজা ব্যবহার করা যেতে পারে।

শিশুর বুকে সংক্রমণ, সর্দি, জ্বর প্রতিরোধের জন্য হামের টিকা খুব কার্যকর। এ ছাড়া হুপিংকফ ও ডিপথেরিয়ার টিকা এবং নিউমোনিয়া ও মেনিনজাইটিস প্রতিরোধের ভ্যাকসিন দেওয়া উচিত। ভিটামিন এ ও সি এসব রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে বলে মনে করা হয়। শিশুর যেসব খাদ্যে অ্যালার্জি আছে, তা খাওয়ানো পরিহার করতে হবে।

লেখক : রেসিডেন্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

Source:ntv

Sharing is caring!

Comments are closed.