শিশুর কান পরিষ্কার করতে

শিশুর গোসলের পরই কান পরিষ্কার করা উচিত। গোসলের পর নরম সুতি কাপড় কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে কানের বাইরের অংশ পরিষ্কার করুন।কান পরিষ্কার করার সময় শিশুকে শক্ত করে ধরে রাখুন। সামান্য হাত ফসকালেও শিশু ব্যথা পেতে পারে।

কান পরিষ্কার করতে ভেজা নরম সুতি কাপড় ব্যবহার করা উচিত। ভেজা বলতে কাপড় ভিজিয়ে সবটুকু পানি নিঙরে তারপর কান পরিষ্কার করতে হবে, কানে যেন কোন পানি ঢোকার সুযোগ না থাকে। এই ভেজা কাপড় দিয়ে কানের পিছনে আঙ্গুল দিয়ে ঘষে ঘষে পরিষ্কার করুন।

আঙ্গুল দিয়ে কানের বাইরের দিককার ভেতরের অংশ কানের ভাঁজে ভাঁজে ঘষে ময়লা পরিষ্কার করুন।

শিশুর কানের ভেতরের বাইরের অংশ বা outer ear canals পরিষ্কার করতে একদম পানি নিঙড়ানো ভেজা কাপড়ের কোনা পেঁচিয়ে নিন। এই পেঁচানো কোণা খুব সতর্কতার সাথে আস্তে কানের ভেতরের অল্প একটু প্রবেশ করিয়ে ২ বা ৩ বার ঘুরান এবং বের করে আনুন।

শিশুর কানের ভেতরে ভুলক্রমে পানি প্রবেশ করলে শুকনো কাপড় ঢুকিয়ে কান পরিষ্কারের চেষ্টা করবেন না। শিশুকে যে কানে পানি ঢুকেছে সেইদিকে পাশ ফিরিয়ে শুইয়ে রাখুন। কান থেকে পানি বের হলে নরম শুকনো কাপড় দিয়ে কান মুছে দিন।

কখনো শিশুর কান কটন বাড প্রবেশ করাবেন না।

অনেক সময় অনেক শিশুর প্রয়োজনের থেকে অনেক বেশি হলুদ রঙের আঠালো ময়লা হয় , একে বলা হয় ইয়ার ওয়াক্স। এর পরিমাণ স্বাভাবিক থেকে বেশি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

কানের ভেতরের দিকের ময়লা খুব বেশি জমে গেলে নিজে চেষ্টা না করে চিকিৎসকের দ্বারা পরিষ্কার করানোই শ্রেয়।

Courtesy: Healthprior21.com

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!