ঠান্ডা থেকে শিশুর যত্ন

শীতের শুরুতে শিশুদের চট করে ঠান্ডা লেগে যেতে পারে।আবার বেশি ভারী কাপড় চোপড় পরালে ঘেমেও ঠান্ডা লাগতে পারে। তাই দরকার সার্বক্ষণিক খেয়াল। —হালকা কুসুম গরম পানিতে রোজই শিশুকে গোসল করাতে পারেন, এতে কোনো বাধা নেই। তবে গোসল করানোর পর একটা ভারী তোয়ালে দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে মুড়ে নিন, দ্রুত পানি শুকিয়ে জামা পরিয়ে দিন। খোলা ঘরে গোসল নাদিয়ে এ সময় বাথরুমে দরজা-জানালা আটকে গোসল দেওয়াই ভালো।

—রাতে ঘর যাতে বেশি ঠান্ডা হয়ে না যায় তা লক্ষ রাখুন।আস্তে পাখা ছেড়ে দিতে পারেন, কিন্তু গায়ে একটি হালকা চাদর বা কাঁথা দিন।ভোরে বা সন্ধ্যায় ফুলহাতা ভারী জামা, ফুলপ্যান্ট এমনকি মোজা পরালেও ঘুমানোর আগে হালকা সুতি জামা পরিয়ে দিন ও মোজা খুলে দিন। নইলে শিশু ঘুমেরমধ্যে ঘেমে যাবে।

—শিশুদের ঠান্ডা পানি, বরফ, আইসক্রিম ইত্যাদি থেকে বিরত রাখাই ভালো।
—বাড়িতে কারও সর্দি-কাশি হলে ছোট শিশুদের তার কাছ থেকে দূরে রাখুন।

—ধুলাবালি, ঝুল-ময়লা, এমনকি ফুলের রেণু থেকেও শিশুদের অ্যালার্জি জনিত কাশি বা সর্দি হতে পারে। এসব থেকে দূরে রাখুন।

সূত্র – প্রথম আলো

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!