শিশুর গোসলে যেসব বিষয় খেয়াল রাখবেন

শিশুকে নিয়মিত গোসল করাতে হবে। তবে প্রথম দিকে দৈনিক গোসল না করালেও চলে, যদি মলত্যাগ ও প্রস্রাবের পর শিশুকে ভালোভাবে পরিষ্কার রাখা যায়। শিশুকে পরিচ্ছন্ন রাখতে প্রথম বছর এক দিন অন্তর গোসল করালেই চলে।

গোসলের আগে যিনি গোসল করাবেন তার হাত ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। গোসলের জন্য আগে থেকেই বাথটাবে হালকা উষ্ম পানি তৈরি রাখতে হবে। সেই সঙ্গে গোসলের পর শিশুর কোন পোশাকটি পরবে সেটিও তৈরি রাখতে হবে। পানিতে হাত দিয়ে পরীক্ষা করে নিতে হবে পানি কতটুকু গরম। শিশুকে কখনোই বেশি ঠান্ডা বা গরম পানিতে গোসল করানো যাবে না। নাভি যাতে না ভেজে এই বিষয়টি মাথায় রেখে প্রথম দুয়েক সপ্তাহ শরীর না ভিজিয়ে স্পঞ্জিং করে শরীর মুছে দেওয়া উচিত।

গোসলের আগে শিশুর কাপড়– চোপড় খুলে, মল-মূত্র থাকলে সেটি পরিষ্কার করে তারপর শিশুকে বাথটাবে নামাতে হবে। গোসলের পানিতে কোনো রকম অ্যান্টিসেপটিক সলিউশন মেশানো যাবে না। এ ধরনের সলিউশনে ত্বকে র‍্যাশ বা ফুসকুড়ি ওঠে। গোসলের জন্য নিউট্রাল পিএইচ জাতীয় সাবান ব্যবহার করা উচিত। শিশুর গোসলের সময় ত্বক কোমল কাপড় দিয়ে আলতো করে ঘষে দিতে হবে।

গোসলের সময় প্রথমে মাথা ধুয়ে নিয়ে তার পর এক এক করে শরীর, গলা, মুখ ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে আনতে হবে। বসা অবস্থায় মাথায় পানি ঢালা যাবে না। এতে শ্বাস নিতে কষ্ট হবে।

লেখক : সহযোগী অধ্যাপক, হলিফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

cl-ntv

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!