প্লাস্টিকের ফিডার, শিশুর জন্য নিরাপদ?

আগে শুধু কাচের বোতলে শিশুদের দুধ খাওয়ানো হতো। তবে বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিকের বোতল বাজারে পাওয়া যায়। মায়েরা অনেক সময় দ্বিধায় পড়ে যান কোন বোতলে শিশুকে দুধ বা তরল খাওয়াবেন এ বিষয়টি নিয়ে।

প্লাস্টিকের বোতল হালকা এবং বহন করতেও সুবিধাজনক। কাচের বোতল বেশ ভারী এবং হঠাৎ হাত থেকে পড়ে ভেঙে যেতে পারে। ব্যবহারের দিক থেকে প্লাস্টিকের বোতলই মায়েদের পছন্দের। কিন্তু প্লাস্টিকের বোতল শিশুর জন্য কি নিরাপদ? এ বিষয়ে পরামর্শ জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই।

প্লাস্টিকের বোতল কি ক্ষতিকর?

যদি জিজ্ঞেস করেন প্লাস্টিকের বোতল ক্ষতিকর কি না, এর উত্তর হচ্ছে হ্যাঁ। কারণ প্লাস্টিকের বোতল তৈরি হয় বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য দিয়ে, যাকে বলা হয় বিসফেনল-এ। এটি মস্তিষ্কে ক্ষতি করতে পারে, বয়ঃসন্ধি কালকে তরান্বিত, এমনকি প্রজননস্বাস্থ্যকেও প্রভাবিত করতে পারে। যখন প্লাস্টিকের বোতলে কোনো গরম তরল ঢোকানো হয়, তখন এই রাসায়নিক দ্রব্য গলে খাদ্যবস্তুর সঙ্গে মিশে যায়। তাই ওই দুধ খাওয়ালে একপর্যায়ে এটি শিশুর জন্য স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণ হতে পারে।

কাচের বোতল ব্যবহারে সুবিধা

কাঁচের বোতলের মধ্যে বিসফেনল এ-এর মতো কোনো রাসায়নিক বস্তু থাকে না। কোনো ধরনের পেট্রোলিয়াম উপাদানও বোতল তৈরির সময় ব্যবহার করা হয় না। যখন এটার মধ্যে কোনো গরম বস্তু রাখা হয়, কোনো ধরনের বাজে পদার্থ বা ক্ষতিকারক পদার্থ নির্গত হয় না। এটি জীবাণুমুক্ত করা সহজ এবং আকৃতিরও কোনো পরিবর্তন হয় না। তাই এটি শিশুর জন্য নিরাপদ। এটি দুধকে অনেকক্ষণ গরম রাখে এবং পরিবেশবান্ধব।

তবে অসাবধানতার কারণে কাচের বোতল ভেঙে গিয়ে শিশু আহত হতে পারে। এ জন্য কাচের বোতল সতর্কভাবে ব্যবহার করা জরুরি।

Sharing is caring!

Comments are closed.

error: Content is protected !!